পাবনায় নতুন করে স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৮ জনের করোনা শনাক্ত


পাবনায় স্বাস্থ্যকর্মীসহ নতুন করে মোট আটজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সাঁথিয়া হাসপাতালের ৬ জন স্টাফসহ সাতজন এবং ভাঙ্গুড়া উপজেলার একজন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২৫ জনে।

পাবনার সিভিল সার্জন ডাক্তার মেহেদী ইকবাল এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৬ জন স্টাফসহ সাতজনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে তিনজন নার্স, একজন স্যাকমো, একজন সিএফসিপি, একজন এমটি ল্যাব ও হাসপাতাল স্টাফের একজন মেয়ে। এদের সবার বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করে সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

সাঁথিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও (আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার) ডা. মামুন আব্দুল্লাহ জানান, গত ১০ মে সাঁথিয়া থেকে ৪৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে রাজশাহী পাঠানো হয়েছিল। মঙ্গলবার বিকেলে নমুনা রিপোর্টে সাতজনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এর আগে ৯ মে সাঁথিয়া হাসপাতালের একজন ইপিআই টেকনিশিয়ানের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়। এরপরই হাসপাতাল এ সকল স্টাফদের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে রাজশাহী পাঠানো হয়।

সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম জামাল আহমেদ জানান, আমরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের বাড়িগুলো লকডাউন ঘোষনা করেছি। ওই বাড়ি থেকে কেউ জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বের হতে ও প্রবেশ করতে পারবে না। উপজেলা প্রশাসন ওই পরিবারকে শুকনা খাবার সরবরাহ করেছেন।

অপরদিকে, ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম জানান, ভাঙ্গুড়া উপজেলার ৩৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। তার বাড়ি উপজেলার উত্তর কলকতি গ্রামে। টাঙ্গাইলে ইটের ভাটায় কাজ করতেন। গত ৩ মে রাতে গ্রামে আসেন। ছোট বিশাকোল উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। দশদিন থাকার পর বাড়িতে ফিরে যান। এরপর গত ১১ মে তার নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। মঙ্গলবার বিকেলে তার ফলাফল পজেটিভ আসে।