পাবনায় করোনায় আ.লীগ নেতাসহ ৩ জনের মৃত্যু


পাবনায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে সেন্ট্রাল গার্লস হাই স্কুলের অফিস সহকারী ও আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার ভোরে রাজশাহী মেডিকেলে ও সদর উপজেলার আতাইকুলায় মারা যান তারা।

সেন্ট্রাল গার্লস হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক তালেবুর রহমান জানান, করোনা আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন স্কুলের অফিস সহকারী লিয়াকত আলী (৫৯)। বুধবার ভোরে তিনি মারা যান। লিয়াকত আলী পৌর এলাকার নয়নামতি এলাকার মৃত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে।

একই হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন শহরের শালগাড়ীয়া এলকার আলতাফ হোসেন (৬২)। বুধবার ভোর রাতে তিনি মারা যান। আলতাফ হোসেন শালগাড়ীয়া এলাকার মৃত মনজুর হোসেনের ছেলে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা গেছেন। উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া আলতাফ হোসেনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তিনি করোনা আক্রান্ত ছিলেন কি-না তা নমুনা পরীক্ষার পরই বলা যাবে। তবে তাদের মরদেহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করতে বলা হয়েছে।

এদিকে বুধবার সকালে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আতাইকুলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ঈসমাইল হোসেন (৬০)। ইউনিয়নের জোয়ারদহ গ্রামের নিজ বাড়ীতেই মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি।

এদিকে, পাগলা ঘোড়ার গতিতে বাড়ছে পাবনায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। পাবনায় করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি ধীরে ধীরে ভয়ানক রুপ ধারন করছে। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্ত রোগির সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্ত হয়েছে আরও ৭৯ জন। এর মধ্যে রাজশাহী ল্যাবে ৩১ এবং ঢাকায় ৪৮ জনের নমুনায় করোনা পজিটিভ আসে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত পাবনায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪১৫ জন।