পাবনায় পুলিশের ওপর হামলা: আ.লীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৩


পুলিশের ওপর হামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেয়ার মামলায় বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা জয়নাল আবেদীনসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ।

গ্রেফতার অপর ২ জন হলেন- ফরিদুপর উপজেলার বৃলাহিড়িবাড়ী গ্রামের ওয়াজেদ আলী ও সাইদুর রহমান। জয়নাল আবেদীন ভাঙ্গুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক। তিনি উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের বেতুয়ান গ্রামের বাসিন্দা।

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) ভাঙ্গুড়ায় বেতুয়ান ও বৃলাহিড়িবাড়ী গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পুলিশ তা প্রতিহত করে। এ সময় কিছু লোকজন ওসি (তদন্ত) নাজমুল হকসহ ৩ পুলিশ সদস্যকে মারধর করেন।

পুলিশ জানায়, বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) ভাঙ্গুড়া উপজেলার বিএলবাড়ি-বেতুয়ান সড়কে মাইকে ঘোষণা দিয়ে বৃলাহিড়িবাড়ী ও বেতুয়ান গ্রামের লোকজন লাঠিসোটা এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে মুখোমুখি অবস্থান নেয়। খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। পুলিশি হস্তক্ষেপে সংঘর্ষ প্রতিহত করা সম্ভব হয়।

পুলিশ আরও জানায়, পুলিশ বাহিনী তাদের দায়িত্ব পালনকালে আওয়ামী লীগ নেতা জয়নাল আবেদীন ও তার সহযোগীরা পুলিশের ওপর হামলা করে। তারা ভাঙ্গুড়া থানার ওসি (তদন্ত) নাজমুল হকের পিঠের উপর লাঠি দিয়ে আঘাত করেন। এছাড়া থানার উপ- পরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহিম খলিল এবং এসআই সাজেদুর রহমানকেও তারা লাঠিপেটা করেন। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে বেশ বেগ পেতে হয়। এ সময় একটি পক্ষের লোকজন বিএলবাড়ি মার্কেটে কয়েকটি দোকানও ঘর ভাংচুর করে ফেলে।

ভাঙ্গুড়া থানার এসআই ইব্রাহিম খলিল বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার থানায় একটি মামলা (মামলা নং ০২) দায়ের করেন। পোশাকি পুলিশের ওপর হামলা ও সরকারি কাজে বাধা প্রদানের ঘটনায় ২০ জনের নাম উল্লেখ করে মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পর বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাসহ তিন আসামিকে গ্রেফতার করে।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনার সময় শত শত উচ্ছৃঙ্খল লোকের মধ্যেও পুলিশ জানমালের কোনো ক্ষতি হতে দেয়নি। কিন্তু জয়নাল আবেদীনসহ কয়েকজন ব্যক্তি পুলিশের ওপর লাঠিচার্জ করে বসে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের হয়।

এ ব্যাপারে পাবনার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি, চাটমোহর সার্কেল) সজীব শাহরিন বলেন, বুধবার পুলিশ যথাসময়ে ঘটনাস্থলে না থাকলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। অথচ পুলিশের ওপরই কিছু দায়িত্বশীল মানুষ নেতৃত্ব দিয়ে হামলা করেছেন। তিনি বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্বরত্ব পুলিশ সদস্যের ওপর হামলার ঘটনা দু:খজনক।

তিনি জানান, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা মামলায় তিন আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে পাবনা জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।